যশোরে আরিফ বিহারী ও সানি গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

jessore map

jessore mapযশোর : আধিপত্য বিস্তর করাকে কেন্দ্র করে যশোর শহরের মণিহার বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ব্যাপক ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে সুমন নামে এক সন্ত্রাসী আহত হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এই ঘটনা ঘটে। এতে ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মণিহার বাসস্ট্যান্ড ঢাকা রোড বিসিএমসি কলেজ এলাকায় আধিপত্য বিস্তর করাকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী আরিফ বিহারী ও সানি গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আরিফ বিহারীর ভাই সনেটকে চাকু মারে সনি ও তার ক্যাডাররা। খবর পেয়ে সাথে সাথে আরিফ বিহারী তার বাহিনী অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে টায়ার পট্টিতে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। এসময় সন্ত্রাসীরা টায়ার জ্বালিয়ে ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতংক তৈরি করে। বন্ধ হয়ে যায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। যশোরের অন্তত: পাঁচটি রুটের যান চলাচল বন্ধ করে দেয় ওই সন্ত্রাসীরা। এসময় সন্ত্রাসী সানি তার বাহিনী নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।
এদিকে এলাকাবাসী জানান, শহরের কদমতলা এলাকার সাবেক এক ব্যাংক ম্যানেজারের ছেলে সানি একজন সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ। সে ২০-৩০ জন নিয়ে একটি কিশোর বাহিনী গড়ে তুলেছে। এই বাহিনী টায়ার ব্যবসায়ীদের কাছে প্রায়ই চাঁদাবাজি করে।
আহত সুমন সিটি কলেজ পাড়া এলাকার রাজু বিহারীর ছেলে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে যশোর কোতয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান জানান, দুই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বিরোধকে কেন্দ্র করে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ঘটনা স্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
তিনি আরও বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। সানিকে আটকের জন্য পুলিশ অভিযানে আছে।
যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক এম আব্দুর রশিদ বলেন, ছুরিকাহত সুমন আশঙ্কামুক্ত।