নরেন্দ্রপুরে মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে আগুন এবং লুটপাট ও জমি দখলের অভিযোগ

প্রেসক্লাব যশোরে সংবাদ সম্মেলন

যশোর : যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর ইউনিয়নে এক মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে অগ্নিসংযোগ, লুটপাট ও জমি দখল করেছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। গতকাল প্রেস ক্লাব যশোরে সংবাদ সম্মেলন করে এমন অভিযোগ করেছেন সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন।
লিখিত বক্তব্য তিনি বলেন, স্বাধীনতা বিরোধী চক্র ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর নরেন্দ্রপুর এলাকায় হিং¯্র ও বেপোরোয়া হয়ে উঠে আতিয়ার রাজাকারের পরিবার। আতিয়ার দফাদার ও তার লোকজন মুক্তিযোদ্ধাসহ সাধারণ মানুষকে বিভিন্ন সময়ে নির্যাতন করে আসছে। কখনো ভূমি দখল, সরকারি খাস জমি দখল, জোর করে মানুষের গাছ কাটাসহ নিরীহ মানুষের উপর নির্যাতন করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় আমার পারিবারিক সূত্রে পাওয়া ৪ একর জমি দখল করে নিয়েছেন এই রাজাকারের পরিবারের ছেলে আতিয়ার দফাদার ও তার সঙ্গীরা। বিভিন্ন সময়ে তাদের এ নির্যাতন প্রতিবাদ করলে নানারকম নির্যাতন জুলম করছে। গত ৩১ মে রাজাকারের সন্তান আতিয়ার দফাদারের নেতৃত্বে গ্রামের লিটু, আলী হোসেন, বাচ্চু শেখসহ আরো ৮-১০ জনের উপর অতর্কিতভাবে হামলায় ৮-১০ জন গুরুতর আহত হয়। তারা বিভিন্ন সময়ে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলাকার নিরীহ মানুষের উপর নির্যাতন চালিয়ে আসছে। রাজাকারের সন্তান আতিয়ার দফাদার বিভিন্নভাবে তার পরিবারের এবং অন্যান্য আত্মীয়-স্বজনদের ওপর অত্যাচার চালিয়ে আসছেন। অত্যাচার চালিয়ে তারা উল্টো নির্যাতিত মানুষের নামে মিথ্যা মামলা করেন। বর্তমানে তাদের এ অত্যাচার ও প্রাণনাশের ভয়ে নিজ বসতবাড়ি থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন তিনি। মকবুল আরো বলেন, মুক্তিযোদ্ধা হয়েও আমি এই রাজাকারের নির্যাতনের বিচার পাচ্ছি না। তার পরিবারের লোকজন পেলে হত্যা জখম করবে হুমকি দিয়ে বেড়াচ্ছে। এ ব্যাপরে তিনি প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি কাসেম বিশ্বাস, ইউপি সদস্য জাকির হোসেন, শহিদুল ইসলাম, মোস্তাফা কামাল, বিউটি বেগম প্রমুখ।