রূপদিয়া বাজারে নিম্নমানের রডে তৈরী হচ্ছে ড্রেন, ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী

যশোর : যশোর সদর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী রূপদিয়া বাজারের পানি নিস্কাশনের স্থায়ী সমাধানের দাবী ছিলো দীর্ঘদিনের। ব্যবসায়ী ও এলাকাবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে রূপদিয়া বাজারের মুনসেফপুর মোড় থেকে আন্ধারী বট তলা পর্যন্ত যশোর-খুলনা মহাসড়কের দু’পাশ দিয়ে প্রায় ১ কিলোমিটার পানি নিস্কাশনের জন্য পাকা ড্রেনেজ নির্মানের কাজ করছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মাহবুব ব্রাদার্স।

রূপদিয়া বাজারের ব্যাবসায়ীদের দাবী এই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মহাসড়ক নির্মানের পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ এই ড্রেনেজ নির্মানেও ব্যাপক দূর্ণীতি করছে। নিম্নমানের ইট, বালু, খোয়া ও রড দিয়ে তড়িঘড়ি করে ড্রেনটি নির্মান কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এনিয়ে বাজারের কয়েকজন ব্যবসায়ী প্রতিবাদ করলে বিভিন্ন হুমকিধামকি দিয়ে মুখ বন্ধ করেন প্রতিষ্ঠানের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্তারা।

সম্প্রতি ড্রেনের কাজ শেষ হলে উপরের ঢাকনা নির্মানে ব্যাবহার করা হচ্ছে মানহীন পুরাতন জং ধরা চিকোন রড। দীর্ঘদিনের প্রানের দাবী বর্তমান সরকার পূরণ করলেও এর স্থায়ীত্বের মাননিয়ে সংশয়ে বাজারটির ব্যবসায়ী ও সচেতন সমাজের।

স্থানীয়দের অভিযোগের প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার রূপদিয়া বাজারে সরেজমিনে ঘুরে দেখাযায় ড্রেনের মুখের ঢাকনা তৈরি ঢালায়ে (সেন্টারিং) পুরোপুরি মানহীন জং ধরা চিকোন রড ব্যাবহার করছে। যা বাজারে অবস্থিত ভাংঙ্গাড়ির দোকান থেকে স্বল্প দামে কিনে ঢাকনা তৈরির কাজ চলিয়ে যাচ্ছে।

এ ব্যাপারে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মাহবুব ব্রাদার্স এর দায়িত্বরত সুপারভাইজার ফয়সাল বলেন, এসবের কিছুই আমি বলতে পারবনা প্রয়োজন হলে আমাদের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করেন বলে স্থান ত্যাগ করে।

এদিকে সাংবাদিকদের তৎপরতা দেখে সরকারি সহকারী ইঞ্জিনিয়ার পরিচয়দান কারী মুস্তাফিজুর রহমানও সটকে পড়েন। তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নম্বারে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, যদি পুরাতন রড ব্যাবহার করে থাকে তা হলে আমরা দেখবো বলে ফোনটি বন্ধ করে রাখে।

স্থানীয়দের দাবী আন্তত ঐতিহ্যবাহী এই বাজারের ড্রেনেজ ব্যবস্থার সঠিক ভাবে করা হোক।