৪ মাস ভারতে সাজাভোগের পর তাবলীগের ৮ মহিলাসহ ১৭ সদস্য দেশে ফিরল

এ আলী, বেনাপোল : বাংলাদেশি তাবলীগ জামায়াতের ৮ মহিলা সদস্যসহ ১৭জনকে ভারতে ৪ মাস জেল খাটার পরে বেনাপোল দিয়ে বাংলাদেশে ফেরত দিয়েছে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ। রবিবার রাত ৮টায় ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ বেনাপোল চেকপোষ্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে তাদের হস্তান্তর করেন। ফেরত আসারা ঢাকা মিরপুর ও দেশের বিভিন্ন জেলার বাসিন্দা। তাদেরকে ১৪ দিনের জন্য যশোরের ঝিকরগাছা গাজীর দরগাহের প্রাতিষ্ঠানিক হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।
জানা যায়, এ বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ২৬৫ জন তাবলীগ জামায়াতের কর্মীরা পাসপোর্ট যোগে ভারতে যায়। এসময় ভারতে করোনা প্রাদূর্ভাব দেখা দেয়। এ অবস্থার মধ্যে তাবলীগ কর্মীরা সেখানে অবস্থান করছিল। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আসে করোনা সংক্রমণ ছড়ানোর। পরে সেদেশের পুলিশ তাদের আটক করে হরিয়ানা জেল খানায় পাঠায়। সেখানকার আদালত তাদের ৪ মাস সাজা দেয়। সাজার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরে দু-দেশের রাষ্ট্রীয় পর্যায়ের আলোচনার পর আজ তারা দেশে ফিরে আসেন।
বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের (ওসি) মহাসিন খান বলেন, ভারতে আটক তাবলীগ জামায়াতের ৮ মহিলাসহ ১৭জনকে ভারতীয় ইমিগ্রেশন হস্তান্তর করেছে।
বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের স্বাস্থ্য বিভাগের মেডিকেল অফিসার আশরাফুজ্জামান বলেন, ফেরত আসা তাবলীগ সদস্যদের প্রাথমিকভাবে শারীরিক পরীক্ষা করা হয়েছে। যেহেতু তারা দীর্ঘদিন ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে গণজামায়াত ও ৪ মাস জেল হাজতে ছিলেন। তাদের শরীরে করোনাভাইরাস আছে কিনা সেজন্য ১৪ দিনের সরকারি তত্বাবধানে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।