ঝিকরগাছায় সন্ত্রাসীদের চাঁদার টাকা না দেওয়ায় সংবাদকর্মী মহসিন আলমকে মারধর ক্যামেরা ভাংচুর

ঝিকরগাছা : যশোরের ঝিকরগাছায় দাবিকৃত চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকার করায় সংবাদকর্মী মহসিন আলমকে এলোপাতাড়ী মারধর করে আহত ও ক্যামেরা ভাংচুর করেছে সন্ত্রাসীরা। আহত মহসিন ঝিকরগাছা উপজেলার নির্বাসখোলা ইউনিয়নের বেড়ারুপানি গ্রামের সিদ্দীক হোসেনের ছেলে ও চ্যানেল “এস” টিভির শার্শা উপজেলা প্রতিনিধি। এঘটনায় ঝিকরগাছা থানায় সোমবার দুপুরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন মহসিন আলম।

মারধর ও ক্যামেরা ভাংচুরের ঘটনাটি ঘটেছে রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার পাঁচপোতা বাজারে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের ন্যায় কাজ শেষে নাভারণ নিজ অফিস থেকে বাড়িতে ফিরছিলেন মহসিন আলম। পথিমধ্যে পাঁচপোতা বাজারে পৌঁছালে মৃত. বাহার আলী সরদারের ছেলে সন্ত্রাসী রশিদ (৪৭) ও মৃত. খলিল গাজির ছেলে জারর্জিদ (৪৫) মোটর সাইকেলের গতিরোধ করে তার নিকট ৪০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। এসময় তিনি চাঁদার দাবিকৃত টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে সন্ত্রাসীরা মহসিন আলমকে এলোপাতাড়ী মারধর ও কাছে থাকা ৭৫ হাজার টাকা মূল্যের ক্যামেরাটি ভাংচুর করে। এসময় চিৎকার শুনে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা বিভিন্ন প্রকার হুমকি-ধামকি দিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে।

এদিকে সংবাদকর্মী মহসিন আলমকে এলোপাতাড়ী মারধর করে আহত ও ক্যামেরা ভাংচুর করায় ঝিকরগাছা প্রেসক্লাবে সংবাদকর্মীরা এঘটনার তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করেন ও সন্ত্রাসীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার জন্য প্রশাসনের কাছে দাবি জানান।