যশোরে জনপ্রিয় কাউন্সিলর প্রার্থী গ্রেফতার

যশোর : আসন্ন যশোর পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী সাহিদুর রহমান রিপনকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি পুলিশ। সিআইডি পুলিশের একটি টিম বুধবার বিকালে শহরের মণিহার বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে রিপনকে গ্রেফতার করে। পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়।
যশোর সিআইডি পুলিশের এসআই আনোয়ার হোসেন সাংবাদিকদের বলেছেন, ২০২০ সালের ১৭ জুলাই আলাউদ্দিন নামে এক যুবক খুন হন। ওই মামলায় রিপনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
এদিকে, রিপনের গ্রেফতারে পর অভিযোগ উঠেছে জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ এক নেতা এক মাদক ব্যবসায়ীকে কাউন্সিলর পদে পাস করানোর উদ্দেশ্যে জনপ্রিয় কাউন্সির প্রার্থী সাহিদুর রহমান রিপন জনপ্রিয়তায় ঈর্ষাণিত হয়ে এ কা- ঘটিয়েছে বলে চাওর হয়েছে জেলা শহরে।
এলাকাবাসীরা অভিযোগ করেন, জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ ওই নেতার সাথে যশোরে মাদক ও অস্ত্র ব্যবসায়ীদের রয়েছে দহরম-মহরম সম্পর্ক। শীর্ষ ওই নেতার ক্যাডার বাহিনী পুরো জেলায় এখনো টেন্ডার, চাঁদাবাজি, মাদক ও অস্ত্রসহ নানা অপরাধের সাথে যুক্ত।
সূত্র বলছে, শহরের এক নং ওয়ার্ডের এক সময়ের আলোচিত মাদক কারবারী আবু তালেব ক্রাসফায়ারে নিহত হওয়ার পর তার সা¤্রজ্য দখল নিয়েছে একনকার এক কাউন্সিলর প্রার্থী। তিনি মূলত জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ ওই নেতার আর্শিবাদপুষ্ট। এ নির্বাচনে চিহিৃত এ মাদক কারবারীকে কাউন্সিলর পদে বিজয়ী করতে ষড়যন্ত্র মূলকভাবে জনপ্রিয় যুবলীগ নেতা সাহিদুর রহমান রিপনকে গ্রেফতার করানো হয়েছে।
রিপনের অনুসারীদের দাবি, যে মামলায় রিপনকে আটক দেখানো হয়েছে সেটি ২০২০ সালের জুলাই মাসের ঘটনা। যদি ঘটনাটি মিথ্যা না হবে তাহলে এতদিন কেন তাকে আটক করা হয়নি। মূলত রিপনের নিশ্চিত বিজয় ঠেকাতে এই ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। তবে যতবড় ষড়যন্ত্র হোক না কেন আগামী ৩১ মার্চ যশোর পৌরসভা নির্বাচনে এক নং ওয়ার্ডেও জনগণ তাকে কাউন্সিলর পদে বিজয়ী করবেই। কোন মাদক ব্যবসায়ীর স্থান হবে না।
মোল্লাপাড়ার মিজানুর রহমান, রবিউল ইসলাম, আমতলা এলাকার শাহজাহান আলীসহ আরো অনেকে বলেন, গত বছর করোনা দুর্যোগ শুরু হলে সাহিদুর রহমান রিপন দলমত নির্বিশেষে সংকটে পড়া সব ধরণের মানুষের পাশে দাঁড়ান। অনেক অভাবী মানুষের সব সময় তিনি সহযোগিতা করেন। এ কারণে বর্তমান সময়ে এক নং ওয়ার্ডে সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা তিনি। তাকে ষড়যন্ত্র করে নির্বাচনী মাঠ থেকে সরানো হবে আমরা ভাবতেই পারছি না। তবে, আমরা মাঠে আছি। ৩১ তারিখ রিপনের বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো।