বেনাপোলে ভারত থেকে রেলে এল ৩৮৪ টন শুকনো মরিচ

বেনাপোল : সম্প্রতি বাণিজ্য সংক্রান্ত ভারত-বাংলাদেশের বৈঠকের পর করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে দেশের বৃহত্তম স্থলবন্দর বেনাপোল দিয়ে ভারত থেকে কাঁচাপণ্য আমদানি শুরু হয়েছে রেল ওয়াগানে।
সোমবার দুপুর ১২ টার দিকে ভারতীয় রেল ওয়াগানে অন্ধ প্রদেশ থেকে ২টি কনসার্নমেন্টে ৩৮৪ টন শুকনো মরিচ নিয়ে বেনাপোল প্রবেশ করে। ১৬টি ভ্যান সমন্বিত বিশেষ রেলটি পাঠায় ভারতীয় রেল কর্তৃপক্ষ এবং এটি গুন্টুরের রেড্ডিপালেম থেকে ১৩৭২ কি.মি. পথ অতিক্রম করে বাংলাদেশের বেনাপোল পৌঁছায়।
ঢাকার আমদানিকারক হাফিজ কর্পোরেশন ৩ হাজার ২ শত ৫৩ বস্তায় ১ লাখ ৪০ হাজার ৮৫২ কেজি ও রেপসাল ট্রেটিং নামের অন্য একটি আমদানি কারক ৪ হাজার ৬ শত ৪০ বস্তায় ১ লাখ ৯৫ হাজার ৭০৮ কেজি শুকনো মরিচ আমদানি করে। ভারত থেকে আমদানি পণ্যের খালাসকৃত সিএন্ডএফ এজেন্ট বেনাপোলের মোশারফ ট্রেডার্স ও আলম এন্টারপ্রাইজ।
মোশারফ ট্রেডার্সের ম্যানেজার মোস্তফা বলেন, ভারত থেকে ট্রেনে পণ্য আমদানি হলে সড়ক পরিবহনের চেয়ে খরচ কম হবে। একইসাথে বেশী পণ্য আনা যাবে এবং রোদ বৃষ্টি থেকে নিরাপদে পণ্য গন্তব্যে পৌঁছাবে।
বেনাপোল চেকপোষ্ট কার্গো শাখার এআরও শামিম আহমেদ বলেন, ভারত থেকে ওয়াগানে আসা দুটি কনসার্নমেন্ট এর বেনাপোল কাস্টমস এর আনুষ্ঠানিকতা শেষে গন্তব্যে চলে যাবে।
গত মার্চে শুরু হওয়া করোনা মহামারীর বিধিনিষেধের কারণে ভারত-বাংলাদেশ দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যে প্রভাব পড়ে। তাই ভারতীয় হাই কমিশন সরবরাহ শৃঙ্খলার বিঘ্ন কমাতে বাংলাদেশ রেল কর্তৃপক্ষকে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে রেল ওয়াগানে আমদানি করার প্রস্তাব দিলে বাংলাদেশ রেল কর্তৃপক্ষ তাতে সম্মতি জানায়।